চাকরির ভাইবা বোর্ডে যে প্রশ্নগুলো প্রায় সময়ই করা হয়ে থাকে

চাকরির ভাইবা বোর্ডে যে প্রশ্নগুলো প্রায় সময়ই করা হয়ে থাকে:

  1. আপনার নাম কি?
  2. আপনার নামের সঠিক অর্থ কী?-
  3. এই নামের একজন বিখ্যাতব্যক্তির নাম বলুন?
  4. আপনার জেলার নাম কী?
  5. আপনার জেলাটি কিসের জন্য বিখ্যাত ?
  6. আপনার জেলার একজন স্বনামধন্য মুক্তিযোদ্ধার নাম বলুন?
  7. আপনার সঠিক বয়স কত?
  8. আজ ইংরেজিতে কত তারিখ?
  9. আজ বাংলা কত তারিখ?-
  10. আজ হিজরি কত তারিখ ?
  11. আপনি কি কোনো পত্রিকা বা দৈনিক পত্রিকা পড়েন?
    ১২. আপনাকে আমরা কেন আমাদের কোম্পানিতে নিয়োগ দেব বলে আপনি মনে করেন?

১৩. আমাদের কোম্পানিতেই কি কারনে কাজ করতে চান?

১৪. কঠোর পরিশ্রম বলতে কি বোঝেন?

১৫. চাপের মধ্যে কিভাবে কাজ করতে হয়?

১৬. ভ্রমন করা সম্পর্কে কি ভাবেন? প্রয়োজনে ভ্রমন বা বদলি হওয়াকে কিভাবে গ্রহন করবেন?

১৭. আপনার জীবনের প্রধান ও মূল লক্ষ্য কি?

১৮. কি কি বিষয় আপনাকে রাগিয়ে তোলে?

১৯. কোন কোন কাজ বা বিষয় আপনাকে প্রেরণা (Motivation) যোগায়?

২০. আপনার জীবনের করা কিছু ক্রিয়েটিভ বা বিশেষ কাজের উদাহরণ দিন?

২১. আপনি কি নিজে একা কাজ করতে পছন্দ করেন? নাকি কারো সাহায্যের প্রয়োজন হয়?

২২. আপনার করা কিছু দলগত কাজ সম্পর্কে অবগত করুন?

২৩. লিডার নেতৃত্বদানকারী হিসেবে নিজেকে আপনি নিজেকে দশের মধ্যে কত দিবেন?

২৪. ঝুঁকি নিতে কি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন বা পছন্দ করেন?

২৫. আপনার পছন্দ অনুযায়ী অফিস লোকেশান এবং চাকরি কোম্পানির কিছু উদাহরণ দিন?

২৬. আজ থেকে দশ বছর পর নিজেকে ঠিক কোথায় দেখতে চান ?

২৭. কেনো চাকরি ছেড়ে দিতে (Resign) দিতে চাচ্ছেন আপনার আগের কোম্পানি থেকে?

২৮. কাজ থেকে বাহিরে ছিলেন কেন অনেকদিন?

২৯. কেনো পরপর পরিবর্তন করেছেন অনেকগুলো কোম্পানি?

৩০. সবচেয়ে বিরক্তিকর কাজ কি ছিলো আপনার করা?

৩১. আপনার কাছে সবচেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জ কি?

৩২. আপনাকে যদি আমরা আমাদের অফিসে নিয়োগ দেই তাহলে আপনি অফিসের কি কি পরিবর্তন আনতে পারবেন?

৩৩. আপনার আগের কাজে কি আপনি আপনার সর্বোচ্চটা দিয়েছিলেন?

৩৪.আপনি কি নিজেকে একজন সফল ব্যক্তি মনে করেন?

৩৫. আপনার জ্ঞান সমৃদ্ধির জন্য বিগত বছরে কি কি করেছেন?

৩৬. কোথায় কোথায় চাকরির জন্য আবেদন করে ছিলেন?

৩৭. আমাদের কোম্পানির সাথে কি কারোর পরিচয় আছে?

৩৮. আপনাকে যদি নিয়োগ দেওয়া হয় কত দিন আমাদের সাথে কাজ করবেন বা করার ইচ্ছা আছে?

৩৯. নিজেকে ব্যখ্যা করুন আপনি কিভাবে মূল্যবান সম্পদ হবেন আমাদের জন্য?

৪০. কোন সাজেশন আপনার দেয়া যেটা ম্যানেজমেন্ট গ্রহন করেছে এমন একটি উদাহরণ দিন?

৪১. আপনার কলিগদের সাথে আপনার সম্পর্কে ছিল?

৪২. আপনার পছন্দের কাজ কি?

৪৩. কি করতে আপনার ভালো লাগে?

৪৪.আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন?

৪৫. আপনার শখ কি?

৪৬. আপনি কেমন বেতন আশা করেন? বা আপনার সেলারি এক্সপেকটেশন কেমন?

৪৭. কোন কোন পর্যটক স্থানে বেড়াতে গিয়েছেন?

৪৮. আপনার বাড়িতে কে কে থাকেন?

৪৯. ট্রাভেল সম্পর্কে আপনার ধারণা কেমন?

৫০. কম্পিউটার কি শিখেছেন?

ইন্টারভিউয়ের শেষে সাধারণত এগুলোই জানতে চাওয়া হয়,
আরো কিছু কিছু বিষয় সম্পর্কে তারা বিশেষ করে জানতে চাই এবার উত্তরের পালা। এসকল প্রশ্নের পিছনের রহস্য কি, কেনো আপনাকে এ ধরনের প্রশ্ন করা হয় আর কি হতে পারে এর সম্ভাব্য উত্তর এগুলো আপনি জেনে নিন তাহলে আপনার অভিজ্ঞতা বাড়বে।

আপনার মনে হতে পারে এই প্রশ্নটি সবচেয়ে সহজ। কিন্তু আপনি যা ভাবছেন আসলে ব্যাপার তা নয়। কারণ প্রশ্নকর্তা আপনার কথাগুলো খুবই মনযোগ দিয়ে শুনবে। আপনি কেমন বলতে পারেন? আপনি কি আত্মবিশ্বাসী? আপনার কি প্রতিষ্ঠানের হয়ে কথা বলার মতো যোগ্যতা আছে? প্রশ্নকর্তা আপনার কথার মাধ্যমে এ সবগুলো প্রশ্নের উত্তর খুঁজে নিবেন। এই প্রশ্নের উত্তরে আপনার জীবনের পুরো ইতিহাস বলার প্রয়োজন নেই। চাকরির সাথে সম্পর্কযুক্ত কিছু সংক্ষিপ্ত তথ্য সুন্দরভাবে উপস্থাপন করুন।

শিক্ষা প্রযুক্তি ও দেশ-বিদেশের নানান রকম খবর পেতে যুক্ত হন কলেজ টু ইউনিভার্সিটি পেজে।

Leave a Comment