মানুষের দুঃখ কষ্ট বুঝতে পারে ছাগল বলছেন বিজ্ঞানীরা।

মানুষের দুঃখ কষ্ট বুঝতে পারে ছাগল বলছেন বিজ্ঞানীরা।

মানুষের কন্ঠ শুনে ছাগল বুঝতে পারে তার মনে কখন কি চলছে। সাম্প্রতিক বিজ্ঞানীদের নতুন এক গবেষণা এ তথ্য উঠে এসেছে ছাগলের সাথে কথা বললে ছাগল বুঝে যাবে মানুষের দুঃখ কষ্ট এবং তার মনে কি চলছে।
বিবিসি ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে যে
অ্যালার্ম ম্যাট এলিগটের নেতৃত্বে ধন এক গবেষক দল ছাগলের উপর মানসিক বুদ্ধিমত্তা নিয়ে গবেষণা চালান। তারা গবেষণার চালান 27 টি পুরুষ ও নারী ছাগলের উপর। ছাগলগুলো ছিল গৃহপালিত পশু এবং বিভিন্ন জাতের এবং বিভিন্ন বয়সের ছিল।
তারা গবেষণা করে এটা বলেছেন যে দুঃখী মানুষ কিংবা সুখী মানুষ কিংবা রাগান্বিত মানুষের কণ্ঠস্বরের মধ্যেও পার্থক্য করতে পারে ছাগল। ছাগল মানুষের উপস্থিতির সঙ্গে খারাপ খাইয়ে নিতে সক্ষম এবং তাদের মানসিক বুদ্ধিমত্তাও রয়েছে। মানুষের সঙ্গে সম্ভবত দলবদ্ধ ভাবে কাজ করার দীর্ঘ ইতিহাসের কারণে গৃহবধূ প্রাণী বা পোষা প্রাণীরা মানুষের কণ্ঠস্বরের সংবিধানশীলতা বুঝতে শিখেছে।

ছাগলগুলোর সামনে একটি স্পিকারের মাধ্যমে এই দিকে তাকাও ভাগ্যটি বাজিয়েছেন গবেষকরা এটি বলা হয়েছে বিবিসির প্রতিবেদনে। এবং একই বাক্য রাগীও কোমল কন্ঠে কয়েকবার বাজিয়েছেন তারা। তখন তারা নোটিশ করেছেন যে যে ছাগলকে রাগী কন্ঠে ডাকা হয়েছিল সেই সময় এক ধরনের প্রতিক্রিয়া করেছেন তারা। কমল ও সুখী কন্ঠে বাজানোর সময় ছাগলের আম স্পিকারের দিকে আবেগময় দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকতে দেখা গেছে ।

এই কারণে বলা হচ্ছে পশু আচরণ বিষয়ক গবেষক রা বলছেন যে ছাগল ঠিক কুকুর ও ঘোড়ার মতই মানুষের মুখে বিভক্তি পড়তে পারে এবং মানুষের মন বুঝতে সক্ষম। তবে ছাগল এই দক্ষতা কিভাবে অর্জন করেছে তা জানার জন্য আরও অনেক গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

দেশ বিদেশের সকল খবর জানতে সবার আগে চোখ রাখুন কলেজ টু ইউনিভারসিটির ওয়েবসাইটে

Leave a Comment