মোবাইলে ১০০ টাকা রিচার্জে ২৮ টাকা শুল্ক কাটবে। ইন্টারনেট খরচও বাড়ছে।

মোবাইলে ১০০ টাকা রিচার্জে ২৮ টাকা শুল্ক কাটবে। ইন্টারনেট খরচও বাড়ছে।

আগামী বাজেটে বাড়ছে মোবাইল খরচ। মোবাইলে কথা বলা থেকে শুরু করে ইন্টারনেট সেবার উপরও সম্পূর্ণ শুল্ক ধার্য করা হয়েছে এবং বাড়ানো হয়েছে।
বর্তমানে ১৫% ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে টকটাইম ও ইন্টারনেট সেবার উপর।

এই অর্থ কেটে রাখা হবে যখন মোবাইল রিচার্জ করা হবে তখন।
বৃহস্পতিবার যখন আগামী বছরের বাজেট পেশ করা হয় তখন এই কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বেলা তিনটায় দিন স্পিকার ডক্টর শিরিন শারমিন চৌধুরী সংসদে সভাপতির দায়িত্ব ছিলেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও। ২০২৪ ২৫ অর্থবছরে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ এর বাজেট উপস্থাপন করেন।

অর্থমন্ত্রী এ বিষয়ে বলেন মুঠোফোনে কথা বলা এবং ইন্টারনেট ব্যবহারের খরচ বাড়বে কারণ শুল্ক বৃদ্ধি করা হবে এই বছর থেকে। মুঠোফোন একটি অতি প্রয়োজনীয় সেবা। নিম্ন বিত্ত থেকে শুরু করে মধ্যবিত্ত উচ্চবিত্তরা সকলেই মুঠোফোন ব্যবহার করে। facebook messenger whatsapp ইত্যাদি ব্যবহার করা হয় এই মুঠোফোনে এবং কথা বলা তো নিত্য প্রয়োজনীয় একটি অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে সবার। ফলে এসব চালানোর জন্য খরচও আরো বৃদ্ধি করা হবে।

বর্তমানে ১০০ টাকার টকটাইম ১৩৩ টাকা ২৫ পয়সা টাকা চার্জ করা হয়। নতুন প্রস্তাবের কারণে এই টকটাইম বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১০০ টাকার টক টাইম ১৩৯ টাকা। যার রিচার্জ করা খুবই কষ্টসাধ্য নিম্নবিত্ত মানুষদের। দিনে দিনে যেন ইন্টারনেট খরচ এবং টকটাইমের দাম বাড়িয়েই চলছে।

সহজভাবে বলতে গেলে প্রতি ১০০ টাকা রিচার্জে সরকার ২৮ টাকা সুল্ক ধার্য করেছেন। গ্রাহক পাবে এই অর্থে সমপরিমাণ টকটাইম।

প্রথমবারের মতো সম্পূরক শুল্ক আরব করা হয়েছিল ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে কথা বলার উপর। এবং পরবর্তীতে তা ১৫ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয় একাধিক দফায়।

৫৩ তম বাজেট এটি আমাদের স্বাধীন বাংলাদেশের এবং টানা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন চতুর্থ মেয়াতে এই বাজেট প্রণয়ন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ। এটি তার প্রথম বাজেট।

এই বাজেটটি প্রস্তাবিত হয় ৭ লাখ ৫৭ হাজার কোটি টাকায়। এটি বক্তব্যে শিরোনাম হয় সুখী সমৃদ্ধ উন্নত স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে অঙ্গীকার।। এই বাজেট পাস হবে আগামীর ৩০ জুন।

দেশ-বিদেশের নানান রকম তথ্য পেতে চোখ রাখুন কলেজ টু ইউনিভার্সিটি পেইজে এবং ওয়েবসাইটে ধন্যবাদ

Leave a Comment