নতুন মেহেদি ডিজাইন পিক ২০২৪ Simple Mehedi design

মেহেদি ডিজাইন বিভিন্ন উৎসব ঈদ পূজা কিংবা বিয়ের যে কোন অনুষ্ঠানে নিজের হাত কে মেহেদীর রঙে সাজাতে কে না চায়।

এবং মেহেদির নানান রকম ডিজাইন সবার মাথায় সবসময় থাকে না। বিউটি পার্লারে গিয়ে সাজালেও তার খরচ অনেক ব্যয়বহুল। এই কারণে মেহেদির রং এ হাত পা রাঙাতে নতুন নতুন ইউনিক সকল মেহেদির ডিজাইনের কালেকশন তুলে ধরা হলো এই আর্টিকেলের মাধ্যমে। এই আর্টিকেলটি দেখলে আপনারা মেহেদির সকল রকমের ডিজাইনের ছবি পাবেন এবং আইডিয়া পাবেন কিভাবে মেহেদির ডিজাইন আঁকাতে হয়।

আশা করি আমাদের ডিজাইনগুলো আপনাদের ভালো লাগবে।

Table of Contents

প্রাকৃতিক মেহেদি কোনটি?

আসল মেহেদি শুধুমাত্র লালচে বাদামী দাগ দিয়ে থাকে। অন্য কোনো রঙ কখনোই আসল মেহেদি নয়। হেনা মেহেদি, মেহেদি গাছের পাতা থেকে উদ্ভূত হয়, তাই এটি শুধুমাত্র একটি রঙের দাগ দিতে পারে।আসল মেহেদি, একবার পেস্টে মেশানো হলে,এটি শ প্রায় 4-6 দিনের জন্য ত্বকে দাগ দিতে সক্ষম। এই সময়ের পরে, যদি কোনও পণ্য ত্বকে দাগ দেয়, তবে এটি আসলে পেস্টের অন্য কিছু রাসায়নিকের কারণ হয় যা আসল মেহেদি নয়।

মেহেদি ডিজাইন ছবি 2024 !

ঈদুল ফিতর ঈদুল আযহা বিয়ে হলুদ সন্ধ্যা এবং দুর্গাপূজাতে সুন্দরভাবে হাতের কব্জি থেকে শুরু করে পাঁচ আঙুলের সবগুলোতে সুন্দর ভাবে নকশার ডিজাইন করে আপনার হাতকে আরো সুন্দর এবং আকর্ষণীয় করে তুলুন এই মেহেদী গুলোর ডিজাইন এবং আইডিয়া নিয়ে।

মেহেদি ডিজাইন
মেহেদি ডিজাইন

এই মেহেদী গুলোর নকশা শিশু বাচ্চা  ছেলেদের এবং মেয়েদের সকল শ্রেণীর মানুষের জন্যই পারফেক্ট। তালিকা বদ্ধ সেভাবেই করা হয়েছে। আশা করি এই ছবিগুলোর মাধ্যমে আপনারা উপকৃত হবেন।

মেহেদি ডিজাইন

সিম্পল মেহেদি ডিজাইন! Simple Mehndi design

সিম্পল মেহেদি ডিজাইন দিয়ে প্রথমেই শুরু করলাম। বর্গাকৃতির নকশার মাধ্যমে মধ্যমাঙ্গুলী পর্যন্ত আড়াআড়িভাবে সংযুক্ত করা হবে এই ডিজাইনটি। এতে সহজলভ্যতা দেখেই বোঝা যায় যে এই অংকনটি করতে বেশি সময় লাগবে না।

 কারোর। নকশাটি সিম্পল এর মধ্যে চমৎকার এবং সকল ছেলেমেয়েদের জন্যই পারফেক্ট।

মেহেদি ডিজাইন

নতুন সিম্পল মেহেদী ডিজাইন টি এটি দেখতে যদিও একটু কঠিন মনে হয় কিন্তু মেহেদীতে আকাশ দিয়ে পারলে ডিজাইনটি অনেক সহজ। এখানে কারো কাজের মধ্যে অনেক সহজ নকশা রয়েছে। এই সুন্দর ডিজাইনটি অবশ্যই আপনারা হাতে আঁকাতে পারেন এটি অনেক সহজ। এই নকশাটি সিম্পল এর মধ্যে অস্থির একটা নকশা। সাধারণত ইস্কুল কিংবা কলেজের মেয়েদের হাতে এই নকশাটি অনেক সুন্দর মানাবে। যে কোন অনুষ্ঠানে আপনি এই নকশাটি হাতে রাঙাতে পারেন।

উপরের নকশাটি এতটাই পছন্দ যে দেখলে মন চায় আঁকাতে। ডিজাইনটিতে অনেক সুন্দর সুন্দর ফুল ব্যবহার করা হয়েছে। আর ফুল জিনিসটা তো সবারই পছন্দের। কালো কিংবা ফর্সা বা শ্যামলা, সবার হাতে এই ডিজাইনটি সুন্দর মানাবে। উপরের যে নকশাটি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন এই নকশাটি সিম্পল এর মধ্যে সবথেকে বেস্ট। আপনি চাইলে এই ডিজাইনটি আঁকতে

পারেন এই ডিজাইনটির মধ্যে লতার কারু কাজ রয়েছে। আপনি যদি ফ্যাশন সচেতন মেয়ে হয়ে থাকেন বা ফ্যাশন স্টাইলিশ মেয়ে হয়ে থাকেন তাহলে উপরের নকশাটি আপনার অবশ্যই পছন্দ হবে। এই ডিজাইনটি অত্যন্ত সহজ এবং আঁকাতেও খুব কম সময় লাগবে। সহজ মেহেদি ডিজাইন ছবি উপরের ডিজাইনটি তৈরি করা হয়েছে হাতের পিঠের কব্জি থেকে ডিজাইনটিতে অনেক ফুল রয়েছে এবং ক্ষুদ্রার্থী ক্ষুদ্র অনেক প্যাটার্ন রয়েছে সকল প্রকার অনুষ্ঠানের জন্য এই আকাটা বেস্ট।

এই নকশাটি সিম্পল এর মধ্যে অস্থির একটা নকশা। সাধারণত ইস্কুল কিংবা কলেজের মেয়েদের হাতে এই নকশাটি অনেক সুন্দর মানাবে। যে কোন অনুষ্ঠানে আপনি এই নকশাটি হাতে রাঙাতে পারেন।

সহজ মেহেদি ডিজাইন ছবি mahadi digain

উপরের ডিজাইনটি তৈরি করা হয়েছে হাতের পিঠের কব্জি থেকে ডিজাইনটিতে অনেক ফুল রয়েছে এবং ক্ষুদ্রার্থী ক্ষুদ্র অনেক প্যাটার্ন রয়েছে সকল প্রকার অনুষ্ঠানের জন্য এই আকাটা বেস্ট।

সহজ মেহেদি ডিজাইন ছবি
সহজ মেহেদি ডিজাইন ছবি

মেহেদি ডিজাইন: হাতের তালুর এক কার্নিশে একদম সিম্পল এর মধ্যে অনুষ্ঠান বরাবর ডিজাইনটির লতাকৃতির এই মেহেদি ডিজাইনটি নজর কাটতে বাধ্য প্রত্যেক টি মানুষের। এবং এটি খুব সিম্পল।এই ডিজাইনটি খুবই আকর্ষণীয়। যদিও এটি ডিজাইন খুবই সিম্পল। এই ডিজাইনটি শুরু হয়েছে কবজি থেকে। আঙুলগুলোতে এক ধরনের ডিজাইনের অঙ্কন করা আছে।

পায়ের মেহেদী ডিজাইন mahadi digain

কিছুটা বাটা কোম্পানির জুতোর মত দেখাবে এই নকশাটি। বেলি ফুল বেল্ট মিশ্রিত পায়ে মেহেদি ডিজাইন এর যে কোন লম্বা ও চিকন পায়েই বেশ স্মার্ট লাগবে। বিশেষ করে যারা চিকন মেয়ে আছে তাদের লম্বা পায়ে যদি এই ডিজাইনটা আঁকা হয় তাহলে খুবই সুন্দর দেখাবে। হলুদ শাড়ির সাথে এই ডিজাইনটা অনবদ্য লাগবে। দিয়ে অনুষ্ঠানে গায়ে হলুদের এই ডিজাইনটি আপনারা করে দেখতে পারেন।

মেহেদি পায়ের ডিজাইন

এই ডিজাইনটি দেখতে কিছুটা নুপুরের মত। এবং এই ডিজাইনটি দম্পতিদের সুখ সম্ভাবনা কে বৃদ্ধি করবে। নিজের বরের সামনে নিজেকে উপস্থাপন করতে অনুপরের মেহেদী এই ডিজাইনটি চমৎকারভাবে কাজে দেবে। যা আপনার বরকে আপনার প্রতি আকৃষ্ট করবে।

পূজা পার্বণ এবং বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে ও ফুলাকৃতির আলপনা টাইপের এই ডিজাইনটি আপনার পায়ে আঁকতে পারেন। যেকোনো ধরনের শাড়ির বর্ণের সাথে  পায়ের এই ডিজাইনটি ফুটে উঠবে এবং মানানসই হবে।

ঈদের মেহেদি ডিজাইন (mehedi design for Eid)

সাধারণত ইসলামে দুইটি ঈদ পালন করা হয় তার মধ্যে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা এই দুটি ঈদেই মেহেদী ছাড়া অসম্পূর্ণ। ঈদ মানে আনন্দ ঈদ মানে খুশি তাই এই খুশিকে রাঙাতেই সবাই মেহেন্দি ব্যবহার করে থাকে। কারণ মেহেদী হচ্ছে সাঁজের একটি অনবদ্য অংশ। তাই আপনি যদি ঈদের জন্য মেহেদী ডিজাইন খুঁজে থাকেন নিচের ছবিগুলো দেখতে পারেন।( mehndi design for Eid)

বিয়ের মেহেদী ডিজাইন mahadi digain

বিয়েতে মেহেদী প্রচলন অনেক আগে থেকেই হয়ে আসছে। সাধারণত বিয়েতে গর্জিয়াস মেহেন্দি ডিজাইন ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বর কনে কে সাজানোর জন্য মেহেদী ডিজাইন নিচে দেয়া রয়েছে আপনারা দেখতে পারেন। তাছাড়া ছোট বাচ্চাদের জন্য হাতের মেহেন্দি প্রয়োগের ক্ষেত্রে নিচে ডিজাইনগুলো আপনারা চাইলেই নির্বাচন করতে পারেন।

মেহেদি ডিজাইন পিক ২০২৪

এইরকম মেহেদী পিক দেখে মেহেন্দি পড়লে আপনাকে একদমই নতুন বউয়ের মত লাগবে। এই মেহেদী ডিজাইনটি অর্ধ হাত বরাবর। প্রিয়জনকে আকর্ষিত করার জন্য এই ডিজাইনটি একবার হলেও হাতে পড়তে পারেন। আশা করি এই মেহেদী এটি পড়লে আপনাকে অনেক সুন্দর দেখাবে।

সরস্বতী পূজা ও লক্ষ্মী পূজা উপলক্ষে যদি শাড়ির সাথে এইরকম সম্পূর্ণ হাতের ডিজাইন বিশিষ্ট মেহেদী পড়েন তাহলে আপনার হাত কে অনেক আকর্ষণীয় দেখাবে। এই মেহেদী পড়ে যদি কাছে চড়ে পড়েন তাহলে সকল মানুষ আপনার সৌন্দর্যের প্রশংসা করবে।

সহজ মেহেদি ডিজাইন ছবি
সহজ মেহেদি ডিজাইন ছবি

ছেলেদের মেহেদী ডিজাইন এর ছবি ২০২৪

মেয়েরাই শুধুমাত্র মেহেদী ডিজাইন ব্যবহার করে এমনটা নয় এখন যুগের সাথে তাল মিলিয়ে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে ছেলেরাও মেয়েদের ডিজাইন ব্যবহার করে।

শুধুমাত্র ঈদ পূজা বা ধর্মীয় কোন অনুষ্ঠানে ছাড়াও বিভিন্ন পিকনিক আয়োজনেও ছেলেরা মেয়েদের ডিজাইন ব্যবহার করে থাকে। মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরা এখন অনেক ব্রান্ডের মেহেদী পড়ে।

ছেলেদের মেহেদি ডিজাইন

নকশাটি তে খেয়াল করে দেখুন একটি বৃত্তাকার ফুলের মধ্যে অনেকগুলো শেপ তৈরি করা হয়েছে। ফর্সা যারা আছেন তাদের হাতে এই সুন্দর ডিজাইনটি ফুটে উঠবে চমৎকারভাবে।

যেকোনো কারণেই হোক বা গার্লফ্রেন্ডের মন জয় করতে আকর্ষণীয় রকমের মেহেদির ডিজাইন পড়ে স্টাইল করতে ছেলেরা খুব পছন্দ করে এবং এই ধরনের আকর্ষণীয় স্টাইল তারা ব্যবহার করতেই পারে।

এই মেহেদির ডিজাইনটি পুরুষের হাতে অন্যরকম চমৎকার লাগবে। এটি দেখতে কিছুটা ট্যাটুর মত। মধ্যবয়সী পুরুষদের জন্য এই ডিজাইনটি খুবই দুর্দান্ত দেখাবে।

যারা গেম লাভার আছেন তাদের জন্য এই সার্কেল কোষের মেহেদী ডিজাইন টি খুবই সুন্দর মানাবে। বিশেষত্ব যারা পাবজি এবং ফ্রি ফায়ার গেম আর আছেন তাদের জন্য এই ডিজাইনটি অনবদ্ধভাবে সুন্দর দেখাবে। আপনি চাইলেই পেন্ডিং এর শিষ্য থাকা এই নকশাটি আপনার হাতের তালুর মেহেদি ডিজাইন হিসেবে ব্যবহার করতেই পারেন।

ফুলের মেহেদী ডিজাইন

মেহেদী দিয়ে অনেক রকমের ফুলের ডিজাইন হয়ে থাকে। তার মধ্যে কিছু কিছু বাছাইকৃত সুন্দর ফুলের মেহেদী ডিজাইনের ছবি দেয়া হল আশা করছি আপনাদের এগুলো ভালো লাগবে।

জ্যামিতিক মেহেদী ডিজাইন:

অনেকেই জ্যামিতি আকারে মেহেদি ডিজাইন করতে পছন্দ করে। হাতে বেশ সুন্দরও লাগে এই জ্যামিতি ডিজাইন। তাই কয়েকটি জ্যামিতি ডিজাইনের ছবি দেয়া হল। ভালো লাগলে এগুলো আঁকাতে পারেন

ইসলামিক মেহেদী ডিজাইন:

অনেকে আছেন যারা ইসলামিকের বিধান অনুসারে হাতে ইসলামিক ডিজাইন আঁকাতে পছন্দ করেন। তাদের জন্য বেশ কিছু ইসলামিক ডিজাইনের ছবি দেয়া হল আশা করছি ভাল লাগবে।

ঐতিহ্যবাহী মেহেদী ডিজাইন:

বাংলা আর কিছু ঐতিহ্যবাহী যা যুগ যুগান্তর ধরে হয়ে আছে সেই সকল ডিজাইন অনেক মানুষ খুঁজে থাকেন। অনেকেই আছেন ঐতিহ্যবাহী ডিজাইন হাতে আঁকাতে পছন্দ করেন তাদের জন্য কিছু ঐতিহ্যবাহী ডিজাইন এর ছবি তুলে ধরা হলো।

আরো কিছু চমৎকার মেহেদী ডিজাইন:

এই ডিজাইনগুলো অনেক সুন্দর এবং সূক্ষ্ম এবং সবার পছন্দের শীর্ষে রয়েছে এই মেহেদি ডিজাইনগুলো। আপনার হাত সাজাতে এই ডিজাইনগুলো সিলেক্ট করতে পারেন।

সহজ ফুলের মেহেদি ডিজাইন: mahadi digain

প্রতিটি অনুষ্ঠান ইভেন্টের জন্য এই ফুলের নকশাগুলো আপনাদের পছন্দের তালিকায় রাখুন দেখবেন অনেক সুন্দর লাগবে এবং সবাই কে আকর্ষণ করবে।

পাতাযুক্ত লেজ মেহেন্দি ডিজাইন:mahadi digain

আপনার হাতকে সাজাতে এই পাতাযুক্ত মেহেদী ডিজাইনটি অবশ্যই সিলেক্ট করতে পারেন এটি হাতে পড়লে অসাধারণ দেখায় এবং এই ডিজাইনের রয়েছে নানান রকম পাতার সংমিশ্রণ যা আপনার হাতকে অনেক সুন্দর করে গড়ে তুলবে।

ট্রেন্ডিং মেহেদি ডিজাইন:Trending mehedi design

বর্তমান সময়ে এই ডিজাইনগুলো ট্রেন্ডিং এ রয়েছে। এই ডিজাইনগুলোর জনপ্রিয়তা অনেক। হাজার হাজার মানুষ এই ডিজাইনগুলো তাদের হাতে রাঙ্গাচ্ছে। তাই আপনি চাইলে

এই মেহেদি ডিজাইন গুলো লাগাতে পারেন।

মেহেদি ডিজাইন mahadi digain Video : Mehedi design video

মেহেদির এই ডিজাইনটি হাতের তালু কিংবা পিঠে ব্যবহার করতে পারেন। সিম্পুল আকৃতির এই নকশাটি সবারই হাতে সুন্দর দেখাবে। আপনি ফর্সা হন বা কালো এই ছোট্ট নকশাটি করতেই পারেন। মূলত বেলি ও বকুল ফুল কে দুই ভাগ করে একটি সেব এক দিকে আরেকটির বিপরীত পাশে রাখা হয়েছে নকশা টির মাধ্যমে।

মেহেদি পিক ২০২৪:mahadi digain

এইরকম মেহেদী পিক দেখে মেহেন্দি পড়লে আপনাকে একদমই নতুন বউয়ের মত লাগবে। এই মেহেদী ডিজাইনটি অর্ধ হাত বরাবর। প্রিয়জনকে আকর্ষিত করার জন্য এই ডিজাইনটি একবার হলেও হাতে পড়তে পারেন। আশা করি এই মেহেদী এটি পড়লে আপনাকে অনেক সুন্দর দেখাবে।

মেহেদি পিক ২০২৪

সরস্বতী পূজা ও লক্ষ্মী পূজা উপলক্ষে যদি শাড়ির সাথে এইরকম সম্পূর্ণ হাতের ডিজাইন বিশিষ্ট মেহেদী পড়েন তাহলে আপনার হাত কে অনেক আকর্ষণীয় দেখাবে। এই মেহেদী পড়ে যদি কাছে চড়ে পড়েন তাহলে সকল মানুষ আপনার সৌন্দর্যের প্রশংসা করবে।

গর্জিয়াস মেহেদি ডিজাইন : mahadi digain

এই মেহেদির ডিজাইনটি খুবই ট্রেন্ডিং। এবং এই ডিজাইনটি সুন্দরী তরুণী ও মধ্যবয়সী বিবাহিত মহিলাদের মিডিয়াম পুরুত্বের হাতে অনেক চমৎকার দেখাবে। আপনার শরীর যদি একটু স্বাস্থ্যবান এবং গুলুমুলু টাইপের হয়ে থাকে তাহলে এই ডিজাইনটি পড়লে আপনাকে অসম্ভব সুন্দরী লাগবে।

ঈদের সময় এই ডিজাইনটি আপনার বেস্ট সলিউশন। এবং কিছুদিন আগেও এই ডিজাইনটি ট্র্যান্ডিংয়ে ছিল। তবে এরকম ডিজাইন কখনোই জনপ্রিয়তা থেকে ছিটকে পড়ে না।

মেহেন্দি ডিজাইন করার নিয়ম:mahadi digain

নিচের আলোচনাতে ধাপে ধাপে মেহেদী আর্ট করার নিয়ম জানানো রয়েছে।

১. প্রথমে যে স্থানে আপনি মেহেদি লাগাবেন সেই স্থানটি ভালো করে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন।

২. এবার আপনি কোন ডিজাইনের মেহেদী আকাবেন আপনার হাতে সেটি নির্বাচন করুন। উপরের দেয়া ছবিগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি নির্বাচন করতে পারেন।

৩. এরপর একটা কলম নিন এবং কলম দিয়ে হাতে নির্বাচন করা নমুনাটি অংকন করে নিন। এটা করলে আপনার আঁকানো ডিজাইন অনেক নিখুঁত এবং সহজ হবে।

৪. তারপর আপনি আঁকাতে শুরু করুন আপনার কাঙ্খিত ডিজাইনটি। মেহেদির রং আরও বেশি দীর্ঘস্থায়ী এবং সুন্দর করতে চিনি এবং লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন।

৪. মেহেদি লাগানোর পর শুকানোর  জন্য এক থেকে ছয় ঘন্টা অপেক্ষা করুন মেহেদী শক্ত হয়ে যাওয়ার পর ঘষে তুলে ফেলুন।

মেহেদি ডিজাইন নিয়ে কিছু প্রশ্ন এবং তার উত্তর

প্রশ্ন ১ : মেহেদী কি?

উত্তর: মেহেদী সাধারণত উদ্ভিদ থেকে তৈরি মেহেদী এমন একটি উদ্ভিদ যা প্রাকৃতিক রং তৈরি করে,। এতে অস্থায়ীভাবে লাগানো যায়। মেহেদীতে থাকে টানা জল এবং লোহা জাতীয় দুই ধরনের যৌগ পদার্থ যা ত্বকের সাথে বিক্রিয়া করে লাল এবং বাদামি রং তৈরি করতে সাহায্য করে।

প্রশ্ন ২: ঘরে বসেই কোন মেহেদি তৈরি করার উপায় কি?

উত্তর: বিভিন্ন উৎসব কিংবা বিবে মেহেদী ছাড়া বাঙালির সাজ কমপ্লিট হয় না। অনেকে আছেন কেনা মেহেদী পছন্দ করে আবার অনেকে নিজে তৈরি করে নেন। তাই ঘরে বসে কিভাবে কোন মেহেদী তৈরি করবেন সেটা আর উপায় জেনে নিন। এর রং হবে অনেক গারো এবং উজ্জ্বল সাথে ত্বকের ও কোন ক্ষতি হবে না। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক এই মেহেদি তৈরি করার আসল পদ্ধতি।

  • প্রথমে লাগবে হেনা পাউডার তারপরে দুই চামচ চিনি এবং এসেন্সিয়াল অয়েল। তারপর দুই চা চামচ লেবুর রস।
  • প্রথম পদ্ধতি হলো মেহেদী বা হেনা পাউডার একটি পরিষ্কার পাচ্ছে ঢেলে নিতে হবে। তারপর এতে তেল এবং চিনি এড করতে হবে। চিনি দেওয়ার কারণ হচ্ছে মেহেদী শুকিয়ে যাওয়ার পরেও এটা ত্বকের সঙ্গে লেগে থাকে এই কারণেই চিনি দেয়া হয়। সিনের দেয়া না হলে মেহেদি শুকিয়ে ঝরে পড়তে পারে। 
  • তারপর এসেনশিয়াল অয়েল এবং  লেবুর রস সংযুক্ত করতে হবে।
  •  তারপর মেহেদী গুলো একত্রে মিক্স করে নিতে হবে। 
  • এবং তারপর 24 ঘন্টা পাত্রটির মুখ থেকে প্লাস্টিক কে বেঁধে রাখতে হবে। 
  • ২৪ ঘন্টা পর পাথরটির মুখ থেকে প্লাস্টিকের পলিথিন খুলে ভালো করে আবারো মিশিয়ে নিতে হবে তারপর আপনি এটাকে ত্বকে লাগাতে পারেন হয়ে যাবে আপনাদের হেনা পেস্ট কোন মেহেদী।

প্রশ্ন ৩:মেহেদি ডিজাইন করার জন্য কি কি সরঞ্জাম প্রয়োজন?

উত্তর: সরঞ্জাম যা প্রয়োজন মেহেদী ডিজাইন করার জন্য তা হল

  • মেহেদী পাউডার
  • জল
  • মেহেদি লাগানোর জন্য ব্রাশ।
  • একটি কাগজ বা স্কেচ বুক।

প্রশ্ন ৪: মেহেদি ডিজাইন করার পর কিভাবে যত্ন নেয়া যায়?

উত্তর: মেহেদি প্রথমে ডিজাইন করার পর এটিকে শুকানোর জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে তারপর সাবান এবং জল দিয়ে হালকা ভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে এবং মেহেদির ডিজাইন এর উপর কোন রকমের কোন কেমিক্যাল তেল বা অন্যান্য কিছু ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

প্রশ্ন ৫: সবচেয়ে ভালো মেহেদী কোনটি?

উত্তর; বাজারে অনেক ধরনের মেহেদী পাওয়া যায়। তবে কোনটা ভালো সেটাই অনেক কঠিন বোঝার জন্য। বর্তমান বাজারে ভালো কিছু মেহেদির নাম হল স্মার্ট রাঙ্গাপরি আলমাস এলিট ইত্যাদি।

প্রশ্ন ৬: মেহেদি দিয়ে কতক্ষণ রাখতে হবে?

উত্তর: মেহেদি দিয়ে হাতে সাধারণত ৫ থেকে ১০ মিনিট অপেক্ষা করলে গারো রং হয়ে যায়। তবে আরো ভালো ফলাফল পাওয়ার জন্যও ৩০ মিনিট রাখতে পারেন।

প্রশ্ন ৭: মেহেদি ডিজাইন কতক্ষণ স্থায়ী হয়?

উত্তর: মেহেদি ডিজাইন সাধারণত দুই থেকে চার সপ্তাহ এবং তার থেকে বেশিও স্থায়ী হতে পারে।

মেহেদি ডিজাইনের অনেকগুলো ওর ধরন রয়েছে।আরো কিছু মেহেদী ডিজাইনের ধরন এবং ছবি নিচে দেয়া হল।

প্রশ্ন ৮: কোন মেহেদী আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো হবে?

উত্তর: বাজারে অনেক রকম মেহেদী পাওয়া যায় সেই গুলোর মধ্যে কোনটি সবথেকে ভালো সেটা বলা খুবই কঠিন তবে এখনকার কিছু ভালো ব্রান্ডের মেহেদী বের হয়েছে সেগুলো হচ্ছে স্মার্ট,আলমাস মমতাজ, রাঙাপড়ি, এলিট গোল্ড ইত্যাদি।

প্রশ্ন ৯ঃ মেহেদী কি পায়ে দেয়া যাবে?

উত্তর: আমাদের ইসলামে অনেক রকম নিয়ম-কানুন রয়েছে। ইসলামিক শরীয়ত মতে মেয়েদের ক্ষেত্রে মেহেদি পরার কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। তবে অনেকেই পায়ে মেহেদি দেয়ার ব্যাপারে কিছু আপত্তি করে থাকেন যদিও এর কোন সঠিক প্রমাণ হাদীসে উল্লেখ করা নেই।

প্রশ্ন ১০ঃ কোন মেহেদির রং ভালো?

মেহেদির রঙের ভালো মন্দ বিচার করা উচিত কয়েকটি বিষয়ের উপর বিবেচনা করে। যেমন হাতের ত্বক কারো হাতের টক তেলতেলে হয় বা কারো হাতের ত্বক খসখসে হয় এবং কারো চামড়া উজ্জ্বল সতেজবিশিষ্ট এবং কারো চামড়া হয় একটু কালো।। তবে সকল দিক বিবেচনা করে রাঙাপরীর ও স্মাট মেহেদীর রং তুলনামূলক ভালো।

প্রশ্ন ১১: ট্যাটু করতে কোন ধরনের মেহেদি ব্যবহার করবেন?

সাধারণত কাবেরী টাইপের কোন মেহেদী ব্যবহার করা হয় ছেলেদের হাতের ট্যাটু করতে। তবে হেনা মেহেন্দিও ট্যাটু করতে ব্যবহার করা হয়।

শেষ কথা: 

বাঙ্গালীদের প্রায় মেয়েদেরই বা মানুষেরই মেহেদি ছাড়া কোন উৎসব ভালই লাগে না। অনেকেই মেহেদি ডিজাইন খুঁজে পান না তাদের জন্য এই পোস্টটি দারুন উপকৃত করবে। আশা করছি আপনাদের এই মেহেদি ডিজাইন পোস্টটি ভালো লেগেছে।

যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনারা আপনাদের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এবং চোখ রাখুন কলেজ টু ইউনিভার্সিটি ওয়েবসাইটে।

Also read: এটিটিউড ক্যাপশন বাংলা

Leave a Comment